ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন

অধ্যাপক ড. এইচ এম শহীদুল ইসলাম বারাকাতি

চেয়ারম্যান, শরিয়াহ সুপারভাইজরি কমিটি

ইসলামি বিষয়ে বিশেষ পান্ডিত্য লাভ করা জনাব এইচ এম শহীদুল ইসলাম বারকাতি হাদিস-কুরআন বিষয়ে মাদ্রাসা শিক্ষার পাশাপাশি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমফিল এবং পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। একইসঙ্গে ইসলামি নানা বিষয়ে নিজের দক্ষতার মাধ্যমে দেশে–বিদেশেও খ্যাতি অর্জন করেছেন তিনি। বিভিন্ন ইসলামি কাউন্সিল এবং ফোরামের গুরুত্বপূর্ণ পদের পাশাপাশি তিনি দেশের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শীর্ষস্থানীয় আর্থিক প্রতিষ্ঠানের শরিয়াহ সুপারভাইজরি বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করছেন।

জনাব শহীদুল ইসলাম বর্তমানে ঢাকার আল-কুরআন রিসার্চ সেন্টার এবং বাংলাদেশ মসজিদ মিশনের পরিচালকের দায়িত্বে রয়েছেন। কুরআন ও সুন্নাহ বিষয়ে অগাধ জ্ঞানের অধিকারি জনাব শহীদুল ইসলাম ইসলামী জীবন-যাপনের বিভিন্ন দিক নিয়ে বেশ কিছু গ্রন্থ প্রকাশ করেছেন। একই সঙ্গে তিনি যুক্ত রয়েছেন ইসলাম শিক্ষার নানা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে। অতিথি বক্তা হিসেবে তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাত, সৌদি আরব, যুক্তরাজ্য, ভারত এবং মালয়েশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশের নানান আন্তর্জাতিক সেমিনারে অংশ নিয়েছেন।

বাংলাদেশ বেতার, বাংলাদেশ টেলিভিশন এবং অন্যান্য স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলেও তিনি নিয়মিত বিভিন্ন ইসলামি অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন।

 

 

ড. মুহাম্মদ মুহিউদ্দিন (মাহি)

সদস্য, শরিয়াহ সুপারভাইজরি কমিটি

তরুণ ইসলামি চিন্তাবিদ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ইসলামিক অর্থ ব্যবস্থাপনা এবং ডিজিটাল আর্থিক সেবা বিষয়ের প্রাজ্ঞজন। শিক্ষকতার পাশাপাশি একাধারে গবেষক এবং আন্তর্জাতিক বক্তা হিসেবেও তাঁর সুপরিচিতি রয়েছে।

মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বর্তমানে গ্লোবাল ফিলানথ্রপিক প্ল্যানেট (জিপিপি) ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, কুয়েত ইউনিভার্সিটির ইসলামিক ইকনোমিক্স অ্যাসোসিয়েশনের সমন্বয়ক (ইংরেজি প্রোগ্রাম), রিসার্চ ল্যাব চট্টগ্রামের (আরএলসি) প্রধান উপদেষ্টা এবং এশিয়ান-আফ্রিকান ইয়ুথ গভর্নমেন্ট-এর (এএওয়াইজি) মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

বিশ্বব্যাপী মানবকল্যাণ সেবা ও উদ্যোগের সংগঠক হিসেবেও কাজ করছেন মোহাম্মদ মহিউদ্দিন। ইসলাম ধর্ম ও ইতিহাসের ওপর তাঁর বেশ কয়েকটি জার্নাল এবং প্রকাশনা রয়েছে। যার মধ্যে ‘এ জার্নি টু ইন্টার-কালচার অ্যান্ড ইন্টার-সিভিলাইজেশন স্টাডিজ’, শিরোনামের গবেষণাটি উল্লেখযোগ্য। প্রকাশনাটি ২০১৭ সালে মরক্কোর আগাদিরে অনুষ্ঠিত ‘পিস্ অন ডাইভারসিটি’ শীর্ষক প্রথম আন্তর্জাতিক সম্মেলনে উন্মোচিত হয়। জনাব মহিউদ্দিন ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া থেকে ইসলামিক রিভিলড নলেজ অ্যান্ড হেরিটেজ (কুরআন ও সুন্নাহ স্টাডিজ বিভাগ) বিষয়ে ডক্টর অব ফিলোসফি ডিগ্রি অর্জন করেন।

 

মাওলানা মুফতি মাহমুদুল হাসান মাদানী

সদস্য, শরিয়াহ সুপারভাইজরি কমিটি

মাওলানা মুফতি মাহমুদুল হাসান মাদানী আজমপুর জামে মসজিদের একজন বিশিষ্ট ইমাম। আল মাদরাসাতুল ইসলামিয়া শফিউল উম্মাহ-এর পরিচালক পদের পাশাপাশি আল-কুরআন ও মারকাজ নুরে মক্কা, সৌদি আরবের ইসলামি শিক্ষা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসেবে দায়িত্বরত আছেন তিনি।

সৌদি আরবের মদিনা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইসলাম বিষয়ে অনার্স ডিগ্রি অর্জন করা মাহমুদুল হাসান মাদানী মর্যাদাপূর্ণ ‘ইয়াজা’ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। মসজিদ-এ-নববী-এর ইসলামি অধ্যয়নের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি এই পুরস্কারটি। এ ছাড়া তিনি ‘এক্সিলেন্ট ওয়ার্ল্ড’-এর শরিয়াহ বোর্ডের উপদেষ্টা হিসেবেও কাজ করছেন। জনাব মাদানী নিয়মিত এটিএন বাংলায় অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। তাছাড়া ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ কর্তৃক আয়োজিত জাতীয় পর্যায়ের কোরআন তেলাওয়াত ও হামদ-নাত প্রতিযোগিতায় বিজয়ীও তিনি।

 

রাহেল আহমেদ

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, নগদ লিমিটেড

জনাব রাহেল আহমেদ বর্তমান ‘নগদ’ লিমিটেড-এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁর ২৬ বছরেরও বেশি সময়ের কর্মজীবনে তিনি বাংলাদেশে ব্যবসা ও আর্থিক খাতে উল্লেখযোগ্য দক্ষতা এবং বৈচিত্র্যপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। তিনি এএনজেড-এ ম্যানেজমেন্ট ট্রেইনি হিসেবে তাঁর পেশাগত যাত্রা শুরু করেন।

‘নগদ’-এ যোগদানের আগে তিনি স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, ফার্স্ট গাল্ফ ব্যাংক (এফজিবি) এবং প্রাইম ব্যাংক লিমিটেডসহ বেশ কয়েকটি বৈশ্বিক আর্থিক প্রতিষ্ঠানে কাজ করেছেন। উল্লেখ্য, মধ্য প্রচ্যের দুবাইতে এমিরেটস ইসলামিক ব্যাংকে চাকুরীরত সময়ে ইসলামিক ফাইন্যান্স বিষয়ে ব্যপক অভিজ্ঞতা অর্জনের সুযোগ হয় তাঁর।

প্রাইম ব্যাংকে তিনি ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ বিজনেস অফিসার হিসেবে যোগদান করেন এবং তাঁর দূরদর্শী নেতৃত্বের জন্য ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) পদে উন্নীত হন। রাহেল আহমেদ ম্যাস্ট্রিক্ট স্কুল অব ম্যানেজমেন্ট থেকে আন্তর্জাতিক ব্যবসায় এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করেন।

 

 

মোহাম্মদ আমিনুল হক

নির্বাহী পরিচালক, নগদ লিমিটেড

মোহাম্মদ আমিনুল হক বর্তমানে ‘নগদ’-এর নির্বাহী পরিচালক এবং প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত। সারা বিশ্বের ফরচুন ফাইভ হান্ড্রেড প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করে তিনি অপারেশনাল দক্ষতা অর্জন এবং ডেটাকে ব্যবহার করে সিদ্ধান্ত গ্রহণের বিষয়ে অবকাঠামো প্রতিষ্ঠায় অবদান রেখেছেন।

বোরসা ইস্তাম্বুল রিভিউতে প্রকাশিত সুকুক বা ইসলামি বন্ড বিষয়ে বিশ্বব্যাপী বহুল আলোচিত গবেষণাপত্রের সহ-লেখক অমিনুলের ইসলামিক অর্থ ব্যবস্থাপনার ওপর পান্ডিত্য রয়েছে। ‘নগদ’-এ যোগদানের আগে জনাব আমিনুল রেনোয়ার কনসাল্টিং-এর দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া টিমের নেতৃত্ব দেন এবং বিভিন্ন প্রকল্পের কার্যক্রম এবং ব্যবস্থাপনার তত্ত্বাবধান করেন।

আমিনুল হক ব্রুনাই, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইন, ইন্দোনেশিয়া এবং বাংলাদেশে রয়্যাল ডাচ শেল, ব্রিটিশ পেট্রোলিয়াম, ব্যাংক মানদিরি, পলিট্রন এবং স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকের মতো বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানে তাঁর বৈচিত্র্যময় কাজের অভিজ্ঞতাকে কার্যকরভাবে প্রয়োগ করেছেন। আর্থিক খাত ছাড়াও জনাব আমিনুল আরো অনেক খাতেই নিজের অবদান রেখেছেন। যার মধ্যে রয়েছে তেল ও গ্যাস, খনি, লজিস্টিকস এবং ইলেকট্রনিক্স উৎপাদন খাত। জনাব আমিনুল ইউনিভার্সিটি অব নটিংহাম থেকে এমবিএ ডিগ্রি অর্জন করেন।